বোয়ালমারীতে দুই স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে দুই মামলা

ঢাকা, সারাদেশ, ২৯ এপ্রিল ২০২৪, 19 বার পড়া হয়েছে,

কামরুল সিকদার, বোয়ালমারী (ফরিদপুর) থেকে:
ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় পৃথক দুটি মামলা হয়েছে। ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করার অপরাধে গতকাল সোমবার (২৯ এপ্রিল) সকালে স্থানীয় থানায় মামলা দুটি করেন ভুক্তভোগী ছাত্রীদের স্বজনেরা। ভিকটিম দুইজনকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ফরিদপুরের সালথা উপজেলার খারদিয়া গ্রামের দেলোয়ার মোল্যার ছেলে মো. সম্রাট মোল্যার (১৯) সাথে বোয়ালমারী উপজেলার রূপাপাত ইউনিয়নের কুমড়াইল গ্রামের ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া এক মাদ্রাসা ছাত্রীর (১৪) প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। গত ২৮ এপ্রিল মাদ্রাসা যাওয়ার পথে মেয়েটিকে মোটরসাইকেলে করে সম্রাট পাশের গ্রাম তামারহাজি তার খালু খোকন শেখের বাড়ি নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে মেয়েটিকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় মেয়েটির দাদা বাদি হয়ে সোমবার থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী/২০০৩) এর ৯(১) ধারায় মামলা করেন। মামলা নম্বর-৩০।
এদিকে বোয়ালমারী উপজেলার শেখর ইউনিয়নের মাগুড়া গ্রামের কামাল সিকদারের ছেলে রাহাত সিকদার (১৮) সাথে একই গ্রামের ৯ম শ্রেণির এক ছাত্রীর (১৮) প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। গত ২৯ এপ্রিল রাত একটার দিকে ওই ছাত্রীর শয়নকক্ষে গিয়ে রাহাত সিকদার জোরপূর্বক ছাত্রীর ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় রাহাত শিকদারকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী/২০০৩) এর ৯(১) ধারায় থানায় মামলা করেছেন। মামলা নম্বর-৩২।
মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বোয়ালমারী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মজিবর রহমান বলেন, দুই ধর্ষককে গ্রেপ্তার করে সোমবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। আর ভিকটিমদেরকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।