মেঘনায় প্রতীক নিয়ে এক প্রার্থী অন্য প্রার্থীকে অশালীন গালাগাল

চট্টগ্রাম, সারাদেশ, ৭ এপ্রিল ২০২৪, 28 বার পড়া হয়েছে,

মো. ইব্রাহীম খলিল মোল্লা, মেঘনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধি
কুমিল্লা মেঘনা উপজেলায় প্রতীক নিয়ে কথা কাটাকাটিতে উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী তাজুল ইসলাম তাজ এর বিরুদ্ধে অন্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মো. নাসির উদ্দীন শিশির এর সঙ্গে অশালীন ভাষায় গালমন্দের অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে ভুক্তভোগী থানায় ও নির্বাচন অফিসে লিখিত অভিযোগ দেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শনিবার (৭ এপ্রিল,২৪) দুপুরে ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে প্রার্থীদের সঙ্গে উপজেলার কর্মকর্তাদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে দুপুর ২টার দিকে সবাই বের হয়ে উপজেলা পরিষদের সামনে এলে আনারস মার্কা প্রতিক নিয়ে দুইজনের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হলে একপর্যায়ে তাজুল ইসলাম তাজ একাধিক লোকজনের সম্মুখে মো. নাসির উদ্দিন শিশিরকে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে হাত-পা ভেঙে ফেলার হুমকি দেয়। যদিও নাসির উদ্দিন শিশির তার আগেই আনারস প্রতীকের জন্য উপজেলা নির্বাচন অফিসে একটি দরখাস্ত পেশ করেন।

চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মো. নাসির উদ্দিন শিশির বলেন, আমি এখন জীবনের নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছি। আমি প্রশাসনের নিকট উপযুক্ত বিচারের দাবি চেয়ে থানায় অভিযোগ দিয়েছি। আশাকরি প্রশাসন তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করিবেন।

এদিকে অভিযোগের বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী তাজুল ইসলাম তাজের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি বিষয়টি অস্বীকার করে আমাদের এই প্রতিনিধিকে বলেন, রিটার্নিং কর্মকর্তার সাথে মতবিনিময় শেষ করে আমি শিশিরকে অনুরোধ করেছি যে ভাই আনারস প্রতীক নিয়ে আমি গত নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছি এইবারও আমি আনারস প্রতীক চাই। অন্যদিকে উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ মমিন মিয়ার কাছে জানতে চাইলে এর সত্যতা স্বীকার করে তিনি বলেন, আমি অভিযোগ পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে অভিযুক্ত ব্যক্তির নিকট লিখিতভাবে জবাব চেয়েছি।

মেঘনা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন ভোরের কাগজকে বলেন, এ বিষয়ে তদন্ত করা হবে। যদি কোনো ধর্তব্য অভিযোগ পাই তাহলে বিবাদীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আর আচরণবিধি লঙ্ঘনের বিষয়টি উপজেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা দেখবেন।