শেষ দিনে গ্রিজম্যানকে ছেড়ে দিল বার্সা

খেলাধুলা, 1 September 2021, 130 বার পড়া হয়েছে,

দলবদলের শেষ দিনে ভীষণ ব্যস্ত সময় পার করল বার্সেলোনা। শেষ কয়েক ঘণ্টায় ছেড়ে দিল কয়েকজন খেলোয়াড়কে। সবচেয়ে চমকপ্রদ খবরটি এলো একেবারে শেষবেলায়। তারা জানিয়ে দিল, মৌসুমের বাকি সময়ে তাদের সঙ্গে থাকছে না অঁতোয়ান গ্রিজমানও।
ফ্রান্সের বিশ্বকাপজয়ী এ ফরোয়ার্ডকে তারা পাঠাল সরাসরি লিগ শিরোপা প্রতিদ্বন্দ্বী আতলেতিকো মাদ্রিদে। দুই বছর আগে মাদ্রিদের এই ক্লাব থেকেই বাইআউট ক্লজের ১২ কোটি ইউরো পরিশোধ করে তাকে দলে টেনেছিল বার্সেলোনা।
গ্রিজমানকে ছেড়ে দিয়ে তারা এক মৌসুমের জন্যই সেভিয়া থেকে ধারে নিয়ে এলো লুক ডি ইয়ংকে। ৩১ বছর বয়সী এই ডাচ ফরোয়ার্ডকে পরে পাকাপাকিভাবে কিনে নেওয়ার সুযোগও রাখা হয়েছে চুক্তিতে।
গ্রিজমানকে এক বছরের ধারের চুক্তিতে আতলেতিকোয় পাঠানোর বিষয়টি মঙ্গলবার রাতে এক বিবৃতিতে নিশ্চিত করে বার্সেলোনা। শর্তসাপেক্ষে ৪ কোটি ইউরোয় তাকে কিনে নেওয়ার সুযোগও থাকছে আতলেতিকোর। এ ছাড়া দুই ক্লাবের জন্যই চুক্তিতে সুযোগ থাকছে ধার আরও এক মৌসুম বাড়ানোর।
রিয়াল সোসিয়েদাদ থেকে ২০১৪ সালে আতলেতিকোয় যোগ দিয়ে ক্লাবটির হয়ে ২৫৬ ম্যাচ খেলে মোট ১৩৩ গোল করেছিলেন গ্রিজমান। সে সময় দলটির হয়ে ইউরোপা লিগ, স্প্যানিশ সুপার কাপ ও উয়েফা সুপার কাপ জিতেছিলেন তিনি। ক্লাবটিতে প্রথম মেয়াদের পাঁচ মৌসুমের প্রতিবারই দলের সর্বোচ্চ গোলদাতা ছিলেন গ্রিজমান।
গ্রিজমানকে অবশ্য কখনই ছাড়তে রাজি ছিল না আতলেতিকো। কিন্তু বার্সেলোনায় যোগ দেওয়ার প্রবল ইচ্ছায় ক্লাবটির সমর্থকদের কাঁদিয়ে ২০১৯ সালে দল ছেড়েছিলেন তিনি। কাম্প নউয়ে অবশ্য সময়টা মোটেও আশানুরূপ কাটেনি তার। প্রত্যাশার প্রতিদান দিতে পারেননি কখনই।
তবে লা লিগার ফিন্যান্সিয়াল ফেয়ার প্লের বাধায় লিওনেল মেসি চলে যাওয়ার পর অনেকে ধারণা করেছিলেন, এবার হয়তো দলের চাওয়া মেটাতে পারবেন গ্রিজমান। গত মৌসুমে বার্সেলোনা কোচ রোনাল্ড কুমানও বারবার বলেছিলেন, অভিজ্ঞ এই খেলোয়াড় তার পরিকল্পনায় ভালোমতোই আছে। কিন্তু বাস্তবে দেখা মিলল উল্টোটা।
গ্রিজমানের মনে পুরনো ঠিকানায় ফেরার ভালোলাগা থাকলেও ফেলে আসা জায়গা পারফরম্যান্স দিয়েই ফিরে পেতে হবে। সঙ্গে থাকবে সমর্থকদের মন জয় করার বাড়তি চ্যালেঞ্জও।
বার্সেলোনায় আসা ডি ইয়ং সেভিয়ার হয়ে লা লিগায় ৬৯ ম্যাচে গোল করতে পেরেছেন কেবল ১০টি। দলবদলের শেষ দিনে এর আগে ব্রাজিলের ডিফেন্ডার এমেরসনকে টটেনহ্যাম হটস্পার এবং ইলাইশ মোরিবাকে লাইপজিগের কাছে বিক্রি করে দেয় বার্সেলোনা।