ইংল্যান্ডকে প্রথম বিশ্বকাপ ফাইনালে তোলা হেন্ডরিক মারা গেছেন

খেলাধুলা, 28 July 2021, 109 বার পড়া হয়েছে,

ইংল্যান্ড ও ডার্বিশায়ারের সাবেক ক্রিকেটার মাইক হেন্ডরিক মারা গেছেন। লম্বা গড়নের মাইক হেন্ডরিক, ক্লাসিকাল সাইড-অন অ্যাকশন ও ইংলিশ কন্ডিশনে প্রতিপক্ষকে ঘুম হারাম করেছেন। তার সিম বোলিংয়ে ভর করে ইংল্যান্ড খেলেছিল প্রথম বিশ্বকাপ ফাইনাল। যিনি আয়ারল্যান্ডের প্রথম পেশাদার কোচ, সেই হেন্ডরিক ৭২ বছর বয়সে মারা গেছেন।
এই সিমার দীর্ঘদিন ধরে যকৃত ও অন্ত্রের ক্যান্সারে ভুগছিলেন। ১৯৮১ অ্যাশেজের ৪০তম বর্ষপূর্তিতে কিছুদিন আগে তিনি বলেছিলেন, এখন আমি আছি প্রস্থানের লাউঞ্জে। কিন্তু এখনও ফ্লাইট ছাড়েনি। এবার সত্যিই তিনি বিদায় নিলেন অজানার উদ্দেশ্যে।
১৯৬৯ সালে ডার্বিশায়ারে হেন্ডরিকের ক্যারিয়ার শুরু। ১৯৭৪ সালে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ভারতের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক। তার সবচেয়ে সেরা পারফরম্যান্স ১৯৭৭ সালের অ্যাশেজ পুনরুদ্ধারের মিশনে। হেডিংলিতে ৯৫ রান দিয়ে ম্যাচে নেন ৮ উইকেট। যদিও তার এই পারফরম্যান্স চাপা পড়ে যায় জিওফ বয়কটের শততম প্রথম শ্রেণির সেঞ্চুরিতে। ১৯৭৮-৭৯ মৌসুমের অস্ট্রেলিয়া সফরেও সাফল্যের স্বাদ পান তিনি। ১৯৮১ সালের অ্যাশেজেও প্রথম দুটি টেস্ট খেলেন বব উইলিসের পরিবর্তে।
আর ওয়ানডে ক্রিকেটে ১৯৭৯ সালের বিশ্বকাপ ফাইনালে দলকে তুলতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন। ৫ ম্যাচ খেলে ১০ উইকেট নিয়ে হন শীর্ষ বোলার। সেরা পারফরম্যান্স ছিল গ্রুপের শেষ ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে। হেডিংলিতে মাত্র ১৬৫ রান ঠেকাতে তার বোলিং ফিগার ছিল ১২-৬-১৫-৪। যদিও ইংল্যান্ড ফাইনালে হেরে যায় ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে।
১২ বছরের ক্যারিয়ারে ডার্বিশায়ারের হয়ে সাতশ’এরও বেশি উইকেট নেন হেন্ডরিক। ১৯৮১ ন্যাটওয়েস্ট ট্রফি জিততে ক্লাবকে সহায়তা করেন। নটিংহ্যামশায়ারের সঙ্গে তিনটি মৌসুম খেলেন এবং পরে হন ক্লাবটির ম্যানেজার। ১৯৯৫ সালে পান আয়ারল্যান্ডের কোচের চাকরি। পাঁচ বছরে তিনি বেশ প্রশংসা কুড়ান সেখানে এবং ফিরে আসেন ডার্বিশায়ারে, বোলিং কোচ হয়ে।