চিলিকে বিদায় করে কোপার সেমিতে ব্রাজিল

খেলাধুলা, 3 July 2021, 43 বার পড়া হয়েছে,

সংগ্রাম, ব্রাজিলের এই ম্যাচের উপজীব্য বিষয় তো এটাই ছিল। গোল করার সংগ্রাম, দশ জনের দল নিয়েও গোল রক্ষা করার সংগ্রাম। সে সংগ্রামে সফলভাবেই উতরে গেছে সেলেসাওরা। লুকাস পাকেতার একমাত্র গোলে তারা চিলিকে হারিয়ে চলে গেছে কোপা আমেরিকার শেষ চারে।

গ্রুপপর্বে ব্রাজিল খেলেছে দুর্দান্ত। চার ম্যাচ খেলে জয় তুলে নিয়েছিল প্রথম তিনটিতে, শেষ ম্যাচে ড্র হলেও বি গ্রুপ থেকে তাদের শ্রেষ্ঠত্ব রুখতে পারেনি সেটা। অন্যদিকে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ চিলির তো এ গ্রুপ থেকে উঠে এসেছেই কষ্টেসৃষ্টে। এক হার, দুই ড্রয়ের পর একটি জয় তুলে নিয়ে নকআউট নিশ্চিত করেছিল চিলি।

গোল শূন্য ব্যবধানে শেষ হয় ব্রাজিল ও চিলির মধ্যকার ম্যাচের প্রথমার্ধ। তবে বেশ কয়েকবার গোলের সুযোগ তৈরি হয়েছিল। ম্যাচের ২২তম মিনিটে প্রথম ভালো সুযোগ পান রবের্তো ফিরমিনো। নেইমারের ক্রসে বলে পা ছোঁয়াতে চেয়েও ব্যর্থ হয়েছেন তিনি।

নিজেদের গুছিয়ে নিয়ে চিলিকে চেপে ধরা ব্রাজিল ৩৭তম মিনিটে আবারও সুযোগ পায়। নেইমারের ফ্লিক ফ্রান্সিসকো সিয়েরালতার পায়ে লেগে কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা পায় চিলি।

বিরতি থেমে ফিরেই গোলের দেখা পায় ব্রাজিল। শেষ পর্যন্ত জয় সূচকে পরিণত হওয়া একমাত্র গোলটি করেন লুকাস পাকুয়েতা। ম্যাচের ৪৬তম মিনিটে ফিরমিনোর বদলে বিরতির পর মাঠে নামা পাকুয়েতা নেইমারের কাছ থেকে বল পেয়ে সহজেই জাল খুঁজে নেন। তবে এর মাত্র ৩ মিনিট পরেই বড় ধাক্কা খায় ব্রাজিল।

ম্যাচের ৪৯তম মিনিটে ১০ জনের দলে পরিণত হয় ব্রাজিল। বল নিয়ন্ত্রণে নিতে জেসুস উপরে পা তুললে বুট গিয়ে লাগে ইউজেনিও মেনার মুখে লাগে। বিপজ্জনক এ ফাউলের জন্য আর্জেন্টাইন রেফারি পাত্রিসিও লোসতাও তাকে লাল কার্ড দেখান। কোপা আমেরিকার গত আসরের ফাইনালেও লাল কার্ড দেখেছিলেন জেসুস।

দশজনের ব্রাজিলকে পেয়ে চাপ তৈরি করে খেলার চেষ্টা করে চিলি। তার ধারাবাহিকতায় অবশ্য ৬২তম মিনিটে গোলও পায় তারা। তবে অফসাইডের জন্য তা বাতিল হয়ে যায়।

পাল্টা আক্রমণে ৬৬তম মিনিটে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ পান নেইমার। তবে ডি বক্সে ঢুকেও ব্যর্থ হন তিনি। এরপর বাকি সময় আক্রমল-পাল্টা আক্রমণে খেলা চললেও আর কোন গোল হয়নি। ফলে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই পাওয়া গোলে ১-০ ব্যবধানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ব্রাজিল।

  • 4
    Shares