মাধবপুরে সিনেমার ফাঁসির দৃশ্য দেখাতে গিয়ে শিশুর মৃত্যু, ও পলাতক আসামি গ্রেফতার

সিলেট, হবিগঞ্জ, 1 September 2020, 263 বার পড়া হয়েছে,

লিটন পাঠান, মাধবপুর প্রতিনিধি:
হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় সাত বছরের ৪/৫ জন শিশু মিলে স্টার জলসার অভিনয় করছিল। এমন সময় পুতুলা নামে এক শিশু ঘরের বৈদ্যূতিক পাখায় ওড়না প্যাচিয়ে ফাঁসির অভিনয় দেখাতে গিয়ে পাখার সঙ্গে ওড়নাটি আটকে যায়। মূহুতের মধ্যে পুতুলার করুন মৃত্যু ঘটে। পুতুলা মাধবপুর উপজেলার বাঘাসুরা ইউনিয়নের কালিকাপুর গ্রামের সায়েব আলীর মেয়ে। তার পিতা সায়েব আলী জানান মঙ্গলবার (১-সেপ্টেম্বর) দুপুরে।

পুতুলা বেগম তার সমবয়সি খেলার সাথীদের নিয়ে সিনেমার অভিনয় করছিল। এমন সময় পুতুলা বেগম ফাঁসির দৃশ্য দেখাতে গিয়ে বৈদ্যূতিক পাখার সঙ্গে ওড়না জড়িয়ে যায়। তার সঙ্গের শিশুরা চিৎকার শুরু করলে
পুতুলা কে দ্রুত ডাক্তারের কাছে নিয়ে গেলে কতৃব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে। মাধবপুর থানার অফিসার ইনজচার্জ (ওসি) মোঃ ইকবাল হোসেন জানান ঘটনাটি খোঁজ খবর নিয়ে দেখা হচ্ছে।

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার চৌমুহনী ইউনিয়নের চাঞ্চল্যকর ইদন আলী হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত আসামী মোঃ মুক্তার হোসেন (৪০)কে আটক করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১-সেপ্টেম্বর) দুপুরে মাধবপুর থানাধীন কাশিমনগর পুলিশ
ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মোরশেদ আলম এর নির্দেশনায় এ এস আই গোলাম মোস্তফা সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে মাধবপুর উপজেলার।

চৌমুহনী ইউনিয়নের কালীকৃষ্ণনগর গ্রামের মৃত নজব আলীর ছেলে মোঃ মুক্তার হোসেন কে তার বসত বাড়ি থেকে আটক করা হয়। কাশিমনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোরশেদ আলম সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, হবিগঞ্জের ডিবিতে ইদন আলী হত্যা মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে।যার মামলা নং-০৬ আটক পূর্বক আসামি মুক্তার হোসেন কে হবিগঞ্জ ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।