নাসিরনগরে আদালতের আদেশ অমান্য করে জোর পূর্বক ঘর তুলতে বাঁধা দেয়া ৫ জনকে পিটিয়ে আহত

নাসিরনগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, 7 August 2020, 320 বার পড়া হয়েছে,

স্টাফ রির্পোটার: ৭ আগষ্ট ২০২০ রোজ শুক্রবার সকাল ৯ ঘটিকার সময় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার গোকর্ণ ইউনিয়নের সূচীউড়া গ্রামে বাড়ীর সীমানা নির্ধারণ না করে জোর পূর্বক অন্যের সীমানা ঘর তুলতে গেলে বাঁধা দেওয়ায় ৫ জনকে পিটিয়ে আহত করেছে। আহতরা হচ্ছে শেখ ইসতিয়াক (২৭), হাজী সাহেদা বেগম (৬০), শেখ সেলিনা আক্তার (৩৫), শেখ ইমতিয়াজ (২২), অন্যন্যা ভূইয়া (১১), আহতরা বর্তমানে নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, শেখ সারোয়ার ও আমিনুল ইসলাম বেলায়েতের বাড়ীর সীমানা নিয়ে আদালতে মামলা চলে আসছে। আদালত উক্ত জায়গার সীমানা নির্ধারণ না হওয়া পর্যন্ত অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করে। শুক্রবার সকাল ৮ ঘটিকার সময় নাসিরনগর থানার এ,এসআই সালেহ আহম্মদ ঘটনাস্থলে গিয়ে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করে। এ,এসআই সালেহ আহম্মদ ঘটনাস্থল থেকে ফেরার কিছুক্ষণ পরই আমিনুল ইসলাম বেলায়েত তার ভাই লিয়াকত আলী, ভাতিজা সাইফুল ইসলাম সহ ২০/৩০ জন লোক মিলে উক্ত বিরোধপূর্ণ জায়গা আদালতের নির্দেশ অমান্য করে জোরপূব্র্ক ঘর তুলতে যায়। এ সময় শেখ সারোয়ারের লোকজন বাঁধা দিলে বেলায়েতের লোকজন দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে তাদের উপর ঝাপিয়ে পরে মারপিট করতে থাকে। এ সময় হামলাকারীরা বেশ কয়েকটি ঘর দরজা ভাংচুর করে ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে। তাদের মারপিটে উল্লেখিত ৫ জন মারাত্বক আহত হয়। এ বিষয়ে নাসিরনগর থানায় মামলা প্রস্তুতি চলছে বলে জানায় শেখ সারোয়ার আলম।

এ বিষয়ে নাসিরনগর থানার এ এস অাই সালেহ অাহমেদের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে জানতে চাইলে তিনি বলেন পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে অামি তাদের থামিয়ে দিয়ে অাসি।