সিদ্ধিরগঞ্জে ভাড়াটিয়াকে মারধরের কারণ জিজ্ঞেস করায় সাংবাদিককে কুপিয়েছে প্রতিপক্ষ

ঢাকা, 27 April 2020, 474 বার পড়া হয়েছে,

স্টাফ রিপোর্টার :নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সিদ্ধিরগঞ্জে নিজ ভাড়াটিয়াকে মারধরের কারণ জিজ্ঞেস করায় দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকার সাংবাদিক ফারুক হোসেন হৃদয়কে কুপিয়েছে প্রতিপক্ষরা। সোমবার (২৭ এপ্রিল) সন্ধ্যায় ইফতারের পর মহানগরের সিদ্ধিরগঞ্জের নাসিক ৪নং ওয়ার্ডের আটি এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।

গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় সাংবাদিক ফারুক হোসেন হৃদয়কে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় সুগন্ধা হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল (ভিক্টরিয়া) হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
আহত সাংবাদিক ফারুক হোসেন হৃদয় সিদ্ধিরগঞ্জের নাসিক ৪নং ওয়ার্ডের আটি এলাকার মৃত হাজী আ: গফুরের ছেলে।

হামলাকারীরা হচ্ছে একই এলাকার মৃত আবুল হাসেমের (গেদা) ছেলে সাইজুদ্দিন (২৭), সুমন (২৫) ও মেয়ে ফাতেমা আক্তার ফতে (২২)।
আহত সাংবাদিক ফারুক হোসেন হৃদয় জানায়, আমার বাড়ির দোকানের ভাড়াটিয়া শাহজালালের স্ত্রী রাশিদা বেগম রাশিকে প্রায়ই তার আপন ছোটভাই সাইজউদ্দিন ও সুমন মারধর করে। আজও তাকে মারধর করায় ইফতারের পর সে আমাকে এসে বিষয়টি জানায়। পরে আমার পাশের বাড়ির মৃত আবুল হাসেমের বাড়িতে গিয়ে তার ছেলে-মেয়েদেরকে মারধরের কারণ জিজ্ঞেস করাতেই আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং ফাতেমা আক্তার ফতে, তার বড়ভাই সাইজুদ্দিন ও সুমন অতর্কিত হামলা করে আমাকে মারধর শুরু করে।

এরই মধ্যে সুমন আমার মাথায় এবং হাতে ছেন দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। এসময় আমার আর্তচিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে এসেছে। এরা খুবই দুধর্ষ প্রকৃতির মানুষ। ভাই-বোন কেউ কাউকে মানে না। মারধরের বিষয়টি কেন আমাকে জানালো সেজন্য ক্ষিপ্ত হয়ে তারা আমাকে কুপিয়েছে।

এব্যাপারে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মো: হাওলাদার জানায়, ঘটনাটি জেনেছি। আগে সাংবাদিক ফারুকের চিকিৎসা হোক। পরে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।