লিটন পাঠান মাধবপুর প্রতিনিধি হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় অবস্থিত ফিলিং স্টেশনগুলো মানছে না সরকারী আদেশ। দিন দিন হবিগঞ্জ জেলায় করোনা রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে এ পরিস্থিতিতে গণ পরিবহনে জ্বালানি সরবরাহ করে করোনা ঝুঁকিতে পড়বে লাখো মানুষ। বিভিন্ন সময়ে বিশেষ করে সন্ধ্যার পর থেকে সিএনজিগুলো কে ফোন করে এনে গ্যাস সরবরাহ করা হয়। সরকারী আদেশ কে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে মাধবপুর পৌরসভায় অবস্থিত সুশান ও সেমকো,নয়াপাড়ায় আল আমিন ফিলিং স্টেশন গন পরিবহনে জ্বালানি সরবরাহ করছে। গণ পরিবহনে জ্বালানি সরবরাহ করায় প্রচুর পরিবহন যানবাহন রাস্তায় যাত্রী নিয়ে জেলার বিভিন্ন এলাকায় যাচ্ছেন। সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার জন্য গত ৯ এপ্রিল উপজেলা প্রশাসন কোন গণ পরিবহনে ফিলিং পাম্প জ্বালানী সরবরাহ করতে পারবে না এই মর্মে নির্বাহী আদেশ জারী করা হয়। গনপরিবহনে জ্বালানী সরবরাহ করার ফলে যানবাহন বিশেষ করে সিএনজিগুলো সরবে যাত্রী নিয়ে রাস্তায় চলাচল করছে এ ব্যাপারে মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল হোসেন জানান,কৃষি কাজে ব্যবহৃত,রোগী ও প্রশাসনিক গাড়ী ছাড়া কাউকে গ্যাস দেয়া নিষেধ রয়েছে রাস্তায়কোন. গনপরিবহন দেখা গেলে আমরা কঠোর ব্যবস্থা নিবো। অহরহ গণ পরিবহনে জ্বালানী সরবরাহ বন্ধে কি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আয়েশা আক্তার জানান,আমরা প্রতিটি স্টেশনের মিটার চেকিংয়ের আওতায় এনেছি ও ভিডিও ফুটেজের মাধ্যমে তাদের নজরদারি করা হচ্ছে।জ্বালানী সরবরাহ অবস্থায় ফেলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।"/>

মাধবপুরে সরকারী আদেশ মানছে না ফিলিং ষ্টেশনগুলো,

সিলেট, 23 April 2020, 245 বার পড়া হয়েছে,

 লিটন পাঠান মাধবপুর প্রতিনিধি হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় অবস্থিত ফিলিং স্টেশনগুলো মানছে না সরকারী আদেশ। দিন দিন হবিগঞ্জ জেলায় করোনা রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে এ পরিস্থিতিতে গণ পরিবহনে জ্বালানি সরবরাহ করে করোনা ঝুঁকিতে পড়বে লাখো মানুষ। বিভিন্ন সময়ে বিশেষ করে সন্ধ্যার পর থেকে সিএনজিগুলো কে ফোন করে এনে গ্যাস সরবরাহ করা হয়। সরকারী আদেশ কে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে মাধবপুর পৌরসভায় অবস্থিত সুশান ও সেমকো,নয়াপাড়ায় আল আমিন ফিলিং স্টেশন গন পরিবহনে জ্বালানি সরবরাহ করছে। গণ পরিবহনে জ্বালানি সরবরাহ করায় প্রচুর পরিবহন যানবাহন রাস্তায় যাত্রী নিয়ে জেলার বিভিন্ন এলাকায় যাচ্ছেন। সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার জন্য গত ৯ এপ্রিল উপজেলা প্রশাসন কোন গণ পরিবহনে ফিলিং পাম্প জ্বালানী সরবরাহ করতে পারবে না এই মর্মে নির্বাহী আদেশ জারী করা হয়। গনপরিবহনে জ্বালানী সরবরাহ করার ফলে যানবাহন বিশেষ করে সিএনজিগুলো সরবে যাত্রী নিয়ে রাস্তায় চলাচল করছে এ ব্যাপারে মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল হোসেন জানান,কৃষি কাজে ব্যবহৃত,রোগী ও প্রশাসনিক গাড়ী ছাড়া কাউকে গ্যাস দেয়া নিষেধ রয়েছে রাস্তায়কোন. গনপরিবহন দেখা গেলে আমরা কঠোর ব্যবস্থা নিবো। অহরহ গণ পরিবহনে জ্বালানী সরবরাহ বন্ধে কি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আয়েশা আক্তার জানান,আমরা প্রতিটি স্টেশনের মিটার চেকিংয়ের আওতায় এনেছি ও ভিডিও ফুটেজের মাধ্যমে তাদের নজরদারি করা হচ্ছে।জ্বালানী সরবরাহ অবস্থায় ফেলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।