নাসিরনগরে ধর্ষণ মামলার আসামী হৃদয় গ্রেপ্তার

নাসিরনগর, 27 August 2019, 275 বার পড়া হয়েছে,


মোঃ আব্দুল হান্নান,নাসিরনগর,ব্রাহ্মণবাড়িয়া,জেলার নাসিরনগর উপজেলার সদর ইউনিয়নের দাঁতমন্ডল গ্রাম থেকে রেজুয়ান আহমেদ ভূইয়া হৃদয় (৩৪) নামের এক ধর্ষণ মামলার আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার দুপুর ১ ঘটিকার সময় থানা পুলিশের এস,আই মোঃ ময়নাল হোসেন খাঁন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে দাঁতমন্ডল গ্রাম থেকে হৃদয়কে গ্রেপ্তার করে। সে দাঁতমন্ডল গ্রামের মোঃ রফিকুল ইসলাম ভূইয়া ছোট্ট মিয়ার ছেলে।

মামলার এজাহার ও বাদিনী সূত্রে জানা গেছে, বাদিনী একজন প্রবাসীর স্ত্রী। স্বামীর পরিচিত হওয়ার সুবাধে আসামী রেজুয়ান প্রায়ই বাদিনীর বাড়ীতে আসা যাওয়া করত। বাদিনী সুন্দরী হওয়ায় তার রূপ যৌবনের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে লম্পট রেজুয়ান বাদিনীকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। বাদিনী রেজুয়ানের প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে। পরে রেজুয়ানের পিতা ও আত্মীয় স্বজনের কাছে প্রার্থী হয়। এরপর থেকে রেজুয়ান বাদীনির প্রতি আরো ক্ষিপ্ত ও উত্তেজিত হয়ে উঠে। ঘটনার তারিখ ও সময়ে বাদিনী রাতে ঘরের দরজা বন্ধ করে ঘুমিয়ে পড়ে। গভীর রাতে বখাটে রেজুয়ান সুকৌশলে ঘরের দরজা খুলে ভিতরে প্রবেশ করে ঘুমন্ত বাদিনীকে ঝাপটে ধরে পড়নের কাপড় খুলে জোর পূর্বক বাদিনীর ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাকে ধর্ষণ করে।
ঘটনার পরদিন বাদিনী ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়ে ধর্ষণের চিকিৎসা করে। পরবর্তীতে ১৮আগষ্ঠ ২০১৯ তারিখে বাদিনী ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ১নং ট্রাইব্যুনালে হাজির হয়ে বখাটে রেজুয়ানকে আসামী করে পি-৫৭১/১৯ মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে ২৪ ঘন্টার মধ্যে এফআইআর হিসেবে গণ্য করে ট্রাইব্যুনালকে অবহিত করতে ওসি নাসিরনগর থানাকে নির্দেশ দেন।
এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নাসিরনগর থানার এস,আই মোঃ ময়নাল হোসেন খান এর কাছে জানতে চাইলে তিনি হৃদয় গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন মামলাটি চুলছেড়া তদন্ত চলছে। আসামীকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

Leave a Reply