লাখাই উপজেলার ইয়াবা সম্রাজ্ঞী নার্গিস জেলা হাজতে

নাসিরনগর, 17 June 2019, 570 বার পড়া হয়েছে,


মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) থেকে : হবিগঞ্জ জেলার লাখাই উপজেলার ফুলবাড়িয়া গ্রামের ইয়াবা স¤্রাজ্ঞী আসকর আলীর মেয়ে সুন্দরী নার্গিস আক্তার আরো ৫ জন সহ প্রায় ৩ লক্ষ টাকার মূল্যের ১০০০ পিস মরণনেশা ইয়াবা ট্যাবলেট সহ শায়েস্তাগঞ্জ থানা পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে। ৬ জন মিলে শায়েস্তাগঞ্জ পুরান বাজারের উত্তর দিকে খোয়াই নদীর বেড়ী বাঁধের নির্জনস্থানে বিক্রির উদ্দেশ্যে নিয়ে গেলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডিবি পুলিশ তাদেরকে গ্রেপ্তার করে। এ সময় তাদেরদেহ তল্লাশী করে ১০০০ পিস মরণনেশা ইয়াবা ট্যাবলেট পাওয়া যায় বলে শায়েস্তাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ বিশ্বজিৎ দেব জানায়। এ বিষয়ে ডিবির এস,আই দেবাশীষ তালুকদার বাদী হয়ে শায়েস্তাগঞ্জ থানার মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৮ এর ৩৬ (১) এর ১০ (ক)/৪০ ধারার মামলা নং-৫, জিআর ৪৮/১৯ রুজু হয়েছে। অন্যান্য আসামীরা হলেন শায়েস্তাগঞ্জ থানার দক্ষিণ লেনজা পাড়া গ্রামের হামিদ মিয়ার ছেলে শাহিন মিয়া (৪০),সুমন মিয়া (৩০), মোস্তফার ছেলে চাঁন মিয়া (২৫), মুকসুদ আলীর ছেলে বকুল মিয়া (৩০),হবিগঞ্জ জেলার লস্করপুর থানার ফুল মিয়ার ছেলে তোফাজ্জল হোসেন (২২)। বর্তমানে নার্গিস হবিগঞ্জ
জেল হাজতে রয়েছে। জানা গেছে সুন্দরী নার্গিস আক্তার দীর্ঘদিন যাবৎ ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িত রয়েছে। তাছাড়াও তার রূপ যৌবন ব্যবহার করে বিভিন œছেলেদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে টাকা পয়সা হাতিয়ে নিয়ে নি:স্ব করে ফেলে। তার প্রতারনার ফাঁদে পা দিয়ে নি:স্ব হয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার সদর ইউনিয়নের কামারগাঁওয়ের চাঁন মিয়ার ছেলে বার্বুচি মোঃ আব্বাছ মিয়া,ফান্দাউক ইউনিয়নের জ্যোতি নূরের ছেলে অপু মিয়া সহ অনেকেই। এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে নার্গিসের পরিবারের অনেকেই বিভিন্ন অপরাধের সাথে জড়িত রয়েছে। নার্গিসের ভাই ইকবালের নামে লাখাই থানার মামলা নং ১৪, জিআর ১৭৭/১৭ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ও তার বড় ভাই শাহজাহানের নামে লাখাই থানার মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে জি আর মামলা নং ৪০/১৬ আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।