শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে নগরীর চরপাড়া এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ঘন্টাব্যাপী এ মানব্বন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়।

বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ মতিউর রহমান স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক দুকুল চন্দ্র দীপের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, জেলা মানবধিকার কমিশনের সাধারন সম্পাদক এড. নজরুল ইসলাম চুন্নু, স্কুল শিক্ষক নিহার রঞ্জন রায়, হায়দার আলী, আব্দুর রাজ্জাক, কলেজ প্রভাষক মো. ফরিদুল ইসলাম লিপু, আ.লীগ নেতা প্রমুখ।

এ সময় মানব্বন্ধনে বক্তরা দুই ধর্ষকের কঠিন শাস্তি দাবি করেছেন।

উল্লেখ্য, গত ২৩ জানুয়ারি ময়মনসিংহ নগরীর মাসকান্দা এলাকায় সেবা মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্রের ২য় তলার একটি রুমে নিয়ে ওই স্কুল ছাত্রীকে জোরপূর্বক পালাক্রমে গনধর্ষণ করে ভিডিও ধারন করেন ধর্ষকরা। পরে ভিকটিম লোক লজ্জার ভয়ে বিষয়টি পরিবারের কাছে গোপন রাখে। পরবর্তীতে ৩ ফেব্রুয়ারি ভিকটিমকে পূর্বের ঘটনার ভিডিও মানুষকে দেখিয়ে দিবে বলে ভয় দেখিয়ে আবারও নগরীর চরপাড়া এলাকার নয়াপাড়ায় একটি বাসায় নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষন করে।

এ ঘটনায় গত ৬ ফেব্রুয়ারি ভিকটিমের ভাই বাদি হয়ে হামিদুল এবং রাজীবের নামে কোতোয়ালী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের ৩০ মিনিট পর ছাত্রলীগ নেতা হামিদুল রহমান আকাশকে পুলিশ গ্রেফতার করে। পরবির্তীতে আদালতে সোপর্দ করা হলে আসামি ১৬৪ ধারায় দোষ স্বীকার করে জবানবন্দী দেন। তবে অপর আসামি রাজীব এখনো ধরাছোয়ার বাহিরে রয়েছে বলে জানা গেছে।

"/>

ময়মনসিংহে ধর্ষকের বিচার দাবিতে মানব্বন্ধন

ময়মনসিংহ, 9 February 2019, 353 বার পড়া হয়েছে,


রাইট টাইমস ডেস্ক:


শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে নগরীর চরপাড়া এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ঘন্টাব্যাপী এ মানব্বন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়।

বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ মতিউর রহমান স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক দুকুল চন্দ্র দীপের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, জেলা মানবধিকার কমিশনের সাধারন সম্পাদক এড. নজরুল ইসলাম চুন্নু, স্কুল শিক্ষক নিহার রঞ্জন রায়, হায়দার আলী, আব্দুর রাজ্জাক, কলেজ প্রভাষক মো. ফরিদুল ইসলাম লিপু, আ.লীগ নেতা প্রমুখ।

এ সময় মানব্বন্ধনে বক্তরা দুই ধর্ষকের কঠিন শাস্তি দাবি করেছেন।

উল্লেখ্য, গত ২৩ জানুয়ারি ময়মনসিংহ নগরীর মাসকান্দা এলাকায় সেবা মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্রের ২য় তলার একটি রুমে নিয়ে ওই স্কুল ছাত্রীকে জোরপূর্বক পালাক্রমে গনধর্ষণ করে ভিডিও ধারন করেন ধর্ষকরা। পরে ভিকটিম লোক লজ্জার ভয়ে বিষয়টি পরিবারের কাছে গোপন রাখে। পরবর্তীতে ৩ ফেব্রুয়ারি ভিকটিমকে পূর্বের ঘটনার ভিডিও মানুষকে দেখিয়ে দিবে বলে ভয় দেখিয়ে আবারও নগরীর চরপাড়া এলাকার নয়াপাড়ায় একটি বাসায় নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষন করে।

এ ঘটনায় গত ৬ ফেব্রুয়ারি ভিকটিমের ভাই বাদি হয়ে হামিদুল এবং রাজীবের নামে কোতোয়ালী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের ৩০ মিনিট পর ছাত্রলীগ নেতা হামিদুল রহমান আকাশকে পুলিশ গ্রেফতার করে। পরবির্তীতে আদালতে সোপর্দ করা হলে আসামি ১৬৪ ধারায় দোষ স্বীকার করে জবানবন্দী দেন। তবে অপর আসামি রাজীব এখনো ধরাছোয়ার বাহিরে রয়েছে বলে জানা গেছে।

Leave a Reply